প্রেমিকা থাকার সুবিধা ও অসুবিধা

39

প্রেমিকা থাকার সুবিধা অনেক থাকলেও অসুবিধা কিন্তু কম নয়।হাস্যরস সব সময় যেহেতু সব কিছু নিয়েই গবেষণা করে , সে হিসেবে আজকের গবেষণার বিষয় প্রেমিকা থাকার সম্ভাব্য অসুবিধে নিয়ে। আসুন পড়ে নিই।

আপনার নিজের অ্যাসাইনমেন্ট’তো আছেই, পাশাপাশি গাধারখাটুনি দিয়ে করে দিতে হয় প্রেমিকার অ্যাসাইনমেন্ট। তা ছাড়া প্রেমিকার কলিজার টুকরো কোনো বান্ধবী থেকে থাকলে, তারও অ্যাসাইনমেন্ট করে দিতে হয়। কেননা, প্রেমিকার সঙ্গে ঝগড়া লাগলে সমঝোতার জন্য প্রেমিকার বান্ধবী হস্তক্ষেপ গুরুত্বপূর্ণ।
রিকশা ভাড়া, রেস্টুরেন্টে গিয়ে বিল দেওয়া, এমনকি প্রেমিকার খাওয়া বাদামের অবশিষ্ট আবর্জনাগুলোও প্রেমিকের পকেটে রাখতে হয়।
প্রেমিকার জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে টিউশন ফি দিতে হয়। পাশাপাশি রিকশা খুঁজে দেওয়ার ব্যাপারটা নাইবা বললাম। কেননা, এটা প্রেমিকদের জন্য অলিখিত বাধ্যতামূলক কাজ।
ভার্সিটিতে যাওয়ার পর সব সময় প্রেমিকাদের নজরদারিতে থাকতে হয় প্রেমিকদের। চাইলেও মন খুলে এদিক-ওদিক থাকার কোনো নিয়ম নেই। মেয়েদের সাথে কথা বলা তো দূরের কথা, নিয়মের বাইরে প্রেমিকার কালো তালিকাভুক্ত কোনো ছেলের সাথে কথা বললে ব্রেকাপের হুমকি চলে আসলে প্রেমি